টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয় প্রোটিয়াদের



মিরপুর থেকে: প্রথম ম্যাচে ৫২ আর দ্বিতীয় ম্যাচে ৩১ রানের জয় নিয়ে দুই ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজ ২-০তে জিতে নিল সফরকারী দক্ষিণ আফ্রিকা। প্রোটিয়াদের ছুঁড়ে দেওয়া ১৭০ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে ১৩৮ রানেই থেমে যায় টাইগারদের ইনিংস। চার বল বাকী থাকতেই অলআউট হয়ে যায় স্বাগতিকরা।

১৭০ রানের টার্গেটে ব্যাট হাতে নামেন টাইগারদের ওপেনার তামিম ইকবাল এবং সৌম্য সরকার। ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা বেশ ভালোই করে টাইগার ওপেনাররা।

শুরুটা ভালো করেও দলীয় ষষ্ঠ ওভারে তামিম ইকবাল বিদায় নেন। পারনেলের বলে টপএজ হয়ে মিডউইকেটে ডেভিড উইসিসের তালুবন্দি হন তামিম। ব্যক্তিগত ১৩ রান করে আউট হন তিনি। দলীয় ৪৬ রানের মাথায় তামিম ফিরে গেলে দলীয় ৫৫ রানের মাথায় ব্যাটে ঝড় তুলে বিদায় নেন সৌম্য সরকার। এডি লি’র বলে স্ট্যাম্পিংয়ের ফাঁদে পড়ে আউট হওয়ার আগে সৌম্য করেন ৩৭ রান। ২১ বল মোকাবেলা করে তিনি ৬টি চার আর একটি ছক্কা হাঁকান।

তামিম ইকবাল আর সৌম সরকারের পর বিদায় নেন সাকিব আল হাসান। দলীয় ৬৪ রানের মাথায় ফাঙ্গিসোর বলে ছক্কা হাঁকাতে গিয়ে বাউণ্ডারি লাইনে রিলে রুশোর হাতে ধরা পড়েন সাকিব। আউট হওয়ার আগে তার ব্যাট থেকে মাত্র ৮ রান আসে।

এরপরই ভেঙে পড়ে টাইগারদের ব্যাটিং লাইনআপ। ১২তম ওভারের চতুর্থ ও পঞ্চম বলে ফেরেন সাব্বির রহমান এবং মুশফিক। অভিষিক্ত লি’র বলে সাব্বির ডেভিড মিলারের তালুবন্দি হন মাত্র এক রান করে। আর পরের বলে রিলে রুশোর হাতে ধরা পড়েন ১৬ বলে ১৯ রান করা মুশফিক।

এরপর ক্রিজে এসে সেট হওয়ার আগেই বিদায় নেন নাসির হোসেন। ফাঙ্গিসোর বলে রিলে রুশোর তালুবন্দি হন কোনো রান করতে না পারা নাসির। টপঅর্ডারের ছয় ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে বিপর্যয়ে পড়া টাইগারদের রানের চাকা সচল রাখার চেষ্টা করেন রনি তালুকদার আর লিটন দাস। পনেরতম ওভারে ফাঙ্গিসোর বলে ১০ রান করে বিদায় নেন লিটন।

দলীয় ১০৩ রানের মাথায় দলের সপ্তম উইকেট হারানোর পর ব্যাটিংয়ে আসেন মাশরাফি। দুটি ছক্কা হাঁকিয়ে জয়ের আশা জোগানো টাইগার দলপতিকে বোল্ড করে ফেরান কাইল অ্যাবোট। অষ্টম ব্যাটসম্যান হিসেবে ফেরার আগে মাশরাফি ৮ বলে করেন ১৭ রান।

অভিষেক ম্যাচে রনি তালুকদার ২২ বলে করেন ২১ রান। কাইল অ্যাবোটের বলে শেষ ওভারে বোল্ড হন তিনি।

দ্বিতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে সফরকারী দ. আফ্রিকা নির্ধারিত ২০ ওভারে চার উইকেট হারিয়ে তোলে ১৬৯ রান।

এর আগে প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে জয় পাওয়া প্রোটিয়াদের হয়ে দ্বিতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ব্যাটিং উদ্বোধন করতে নামেন কুইন্টন ডি কক ও এবি ডি ভিলিয়ার্স। টাইগারদের হয়ে বোলিং শুরু করেন আরাফাত সানি। প্রথম ওভার থেকে প্রোটিয়ারা ৯ রান তুলে নেয়।
আরাফাত সানি, নাসির হোসেন, সাকিব আল হাসান, মুস্তাফিজ আর মাশরাফি বোলিং করলেও দলীয় এগারোতম ওভারে এসে উইকেটের দেখা পান আরাফাত সানি। ডি কককে সাব্বিরের তালুবন্দি করেন সানি। আউট হওয়ার আগে ওপেনিং জুটিতে ৯৫ রান তুলে ফেলেন প্রোটিয়া দুই ওপেনার। মিডউইকেটে ক্যাচ দেওয়ার আগে ডি কক করেন ৪৪ রান। ৩১ বলে চারটি চার আর দুটি ছয়ে ডি কক তার ইনিংসটি সাজান।
পরের ওভারে আক্রমণে এসে নাসির হোসেন ফিরিয়ে দেন ডুমিনিকে। ৬ রান করে সাকিবের তালুবন্দি হন ডুমিনি। পরের বলেই ভিলিয়ার্সকে ফিরিয়ে দেন নাসির। উইকেটের পেছনে থাকা মুশফিকের গ্লাভসবন্দি হওয়ার আগে ভিলিয়ার্স ৩৪ বলে ৬ চারে করেন ৪০ রান।
আরাফাত সানি আর নাসির হোসেনের পর উইকেট পান মুস্তাফিজ। ফাফ ডু প্লেসিসকে মুশফিকের তালুবন্দি করেন বাঁহাতি এ পেসার। আউট হওয়ার আগে প্রোটিয়া দলপতি করেন ১৭ বলে ১৬ রান।
স্বাগতিকদের হয়ে নাসির হোসেন দুটি, আরাফাত সানি এবং মুস্তাফিজ একটি করে উইকেট তুলে নেন। শেষ দিকে ডেভিড মিলার ২৮ বলে ৩০ এবং রিলে রুশো ৬ বলে ১৯ রান করে অপরাজিত থাকেন।
দুই ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথমটিতে হেরে পিছিয়ে থাকা বাংলাদেশ সমতা আনার লক্ষ্যে সফরকারী দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দুপুর একটায় মাঠে নামে। টস জিতে মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে এ ম্যাচে আগে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেন দ. আফ্রিকার অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিস।

টাইগারদের প্রথম ম্যাচের স্কোয়াড থেকে বাদ পড়েন সোহাগ গাজী। তার জায়গায় সুযোগ হয়েছে ব্যাটসম্যান রনি তালুকদারের। এ ম্যাচের মধ্য দিয়ে অভিষেক হয় রনি তালুকদারের। আর প্রোটিয়াদের স্কোয়াড থেকে বাদ পড়েন রাবাদা। তার জায়গায় সুযোগ পেয়ে অভিষেক হয় এডি লি’র।
বাংলাদেশ দল: তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম (উইকেটরক্ষক), সাব্বির রহমান, নাসির হোসেন, লিটন দাস, রনি তালুকদার, মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), আরাফাত সানি ও মুস্তাফিজুর রহমান।
দ.আফ্রিকা দল: কুইন্টন ডি কক (উইকেটরক্ষক), এবি ডি ভিলিয়ার্স, ফাফ ডু প্লেসিস (অধিনায়ক), জেপি ডুমিনি, ডেভিড মিলার, রিলে রুশো, ডেভিড উইসিস, ওয়েন পারনেল, কাইল অ্যাবট, এডি লি ও অ্যারন ফাঙ্গিসো।

সারাবাংলানিউজ.কম


July 7, 2015, 5:00 pm
পূর্ববর্তী সংবাদ<<    পরবর্তী সংবাদ>> Share on Facebook
  • সর্বশেষ সংবাদ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বাধিক মতামত

Name  
Email  
Country  
Comments