ভাবমূর্তি নষ্ট করা চলবে না: ছাত্রলীগকে হাসিনা



নানা অভিযোগে সমালোচনার মধ্যে থাকা ছাত্রলীগকে পথ থেকে বিচ্যুত না হতে সতর্ক করেছেন শেখ হাসিনা।
শনিবার আওয়ামী লীগ সমর্থিত সংগঠনটির সম্মেলন উদ্বোধন করে নিয়মিত ছাত্র ও মেধাবীদের মধ্য থেকে নেতৃত্ব নির্বাচনের তাগিদও দেন তিনি।

রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বাংলাদেশের প্রাচীনতম সংগঠন ছাত্রলীগের ২৮তম সম্মেলন উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বর্তমানে আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনাও এই সংগঠনটিতে যুক্ত ছিলেন এবং বদরুন্নেসা কলেজ (তৎকালীন ইডেন ইন্টারমিডিয়েট কলেজ) ছাত্র সংসদের ভিপিও ছিলেন।

শেখ হাসিনা ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে বলেন, “আমি এটুকুই চাইব, ছাত্রলীগ যেন সব সময় একটা আদর্শ নিয়ে চলে। কারণ, আদর্শহীন সংগঠন ব্যক্তিস্বার্থ রক্ষা করতে পারে, জাতির স্বার্থ রক্ষা করতে পারবে না।

“এই সংগঠনের ইতিহাস বাঙালির প্রতিটি অর্জনের সঙ্গে জড়িত। এই সংগঠনের ভাবমূর্তি যেন কোনো ভাবেই ক্ষুণ্ন না হয়।”

বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম থেকে শুরু করে অতীতের বিভিন্ন আন্দোলনে ছাত্রলীগের নেতৃত্বের ভূমিকা থাকলেও সংগঠনটির সাম্প্রতিক কার্যক্রমে প্রশংসার চেয়ে সমালোচনাই বেশি।

হল দখল, দরপত্র নিয়ে সন্ত্রাস, অভ্যন্তরীণ কোন্দল থেকে সংঘর্ষ- এসব কাণ্ডে সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হওয়ায় আওয়ামী লীগ নেতারাও ছাত্রলীগের সমালোচনা করতে ছাড়ছেন না।
ছাত্রলীগের মূল নীতি ‘শিক্ষা-শান্তি-প্রগতি’র কথা সংগঠনটির নেতা-কর্মীদের স্মরণ করিয়ে দিয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখতে তাদের তৎপর হওয়ার আহ্বান জানান শেখ হাসিনা।

ছাত্রলীগের নেতৃত্বে মেধাবী ছাত্রদের দেখার প্রত্যাশা রেখে তিনি বলেন, “মেধাবী, নিয়মিত ছাত্র ও পড়াশোনায় মনোযোগী, তাদেরকেই নির্বাচিত করতে হবে।”

ভবিষ্যতে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বদাতা হিসেবে এখনকার ছাত্রলীগ নেতাদের তৈরি হতে আধুনিক প্রযুক্তি আত্মস্থ করতেও তাদের পরামর্শ দেন প্রধানমন্ত্রী।

“সুশিক্ষায় শিক্ষিত না হলে তারা কিভাবে নেতৃত্ব দেবে?”

এবার সম্মেলনে দুই বছর দেরি হওয়ায় ধারাবাহিকতা রাখতে ছাত্রলীগের নেতৃত্বের বয়সসীমা ২৯ বছর করার কথাও বলেন শেখ হাসিনা, যাকে ‘সাংগঠনিক নেত্রী’ মনে করে ছাত্র সংগঠনটি।

“আমি একটা সুনির্দিষ্ট বয়স ঠিক করে দিয়েছিলাম। ২৭ বছর করে দিয়েছিলাম। ২ বছর নষ্ট হয়েছে। গ্রেস পিরিয়ড দিতে হয়। এখন সেটা ২৯ বছর হয়ে গেছে। ২৯ বছরই থাকতে হবে।”

এই দেরির কথা বলতে গিয়ে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূর্ববর্তী সহিংসতা এবং চলতি বছরের প্রথম তিন মাসের সহিংসতা মোকাবেলায় ছাত্রলীগের ভূমিকার কথাও বলেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী।

Share on Facebook